বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা

মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং প্রবাসী লেখক-সাংবাদিকবৃন্দের সাহিত্য ও প্রতিবেদন সম্পর্কিত কিছু প্রশ্নোত্তর।

মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং প্রবাসী লেখক-সাংবাদিকবৃন্দের সাহিত্য ও প্রতিবেদন সম্পর্কিত কিছু প্রশ্নোত্তর নিয়ে আজকের লেখাটি সাজানো হয়েছে। ১.১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় জাতিসংঘে কোন দেশটি বাংলাদেশের পক্ষে ‘ ভেটো ‘ প্রদান করেছিল? উত্তর – রাশিয়া । ২.১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য কোন ভারতীয় সেনা অফিসারকে বাংলাদেশ সরকার ‘ বীরপ্রতীক ‘ খেতাবে দেয়? উত্তর – জগজিৎ […]

ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ থেকে যেকোনো চাকুরী পরীক্ষায় আসার মত কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন

আজ ৭ই মার্চ, আজ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে প্রত্যেক ঘরে ঘরে দুর্গ গড়ে উঠেছিল দেশকে শত্রুর হাত থেকে রক্ষার জন্য।যেকোনো চাকুরী পরীক্ষায় ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ থেকে বেশ কিছু প্রশ্ন থাকে।বিসিএসসহ যেকোনো চাকুরী পরীক্ষায় আসার মত কিছু প্রশ্ন ও উত্তর দেওয়া হলো। চলুন দেখে নেওয়া যাক। ১।কবে ঢাকায় জাতীয় পরিষদের প্রথম অধিবেশনের […]

মধ্যযুগের বাংলার সামাজিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ইতিহাস

সেন বংশের পতন এবং ইখতিয়ার উদ্দিন মুহম্মদ বিন বখতিয়ার খলজির বঙ্গ বিজয়ের মাধ্যমে বাংলার রাজক্ষমতা মুসলমানদের অধিকারে আসে। ফলে বাংলায় মধ্যযুগের সূচনা ঘটে। মুসলমানদের আগমনের পূর্বে বাংলায় বাস করত হিন্দু ও বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী মানুষ। এগারাে শতক থেকে বাংলায় ইসলাম ধর্ম প্রচার করার জন্য সুফি সাধকগণ আসতে থাকেন। বাংলার সাধারণ হিন্দু ও বৌদ্ধদের অনেকে এ সময় […]

মুঘল শাসন এবং সুবাদারি ও নবাবি আমল

মুঘল শাসন (১৫৭৬-১৭৫৭ খ্রিষ্টাব্দ) সুবাদারি ও নবাবি- এ দুই পর্বে বাংলায় মুঘল শাসন অতিবাহিত হয়। বারােভূঁইয়াদের দমনের পর সমগ্র বাংলায় সুবাদারি প্রতিষ্ঠিত হয়। মুঘল প্রদেশগুলাে সুবা’ নামে পরিচিত ছিল। বাংলা ছিল মুঘলদের অন্যতম সুবা। সতেরাে শতকের প্রথম দিক থেকে আঠারাে শতকের শুরু পর্যন্ত ছিল সুবাদারি শাসনের স্বর্ণযুগ। সম্রাট আওরঙ্গজেবের পর দিল্লির দুর্বল উত্তরাধিকারীদের সময়ে মুঘল […]

আফগান শাসন ও বারােভূঁইয়াদের ইতিহাস

আফগান শাসন ও বারােভূঁইয়া (১৫৩৮ – ১৫৭৬ খ্রিষ্টাব্দ)। ১৫৩৮ খ্রিষ্টাব্দে বাংলার স্বাধীন সুলতানি যুগের অবসান হলে একে একে বিদেশি শক্তিসমূহ গ্রাস করতে থাকে বাংলাকে। মুঘল সম্রাট হুমায়ুন অল্প কিছুকাল বাংলার রাজধানীর ওপর অধিকার প্রতিষ্ঠা করেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাকে আফগান নেতা শের শাহের কাছে পরাজয় মানতে হয়। বাংলা ও বিহার সরাসরি চলে আসে আফগানদের হাতে। […]

রাজা গণেশ ও হাবসি শাসন এবং পরবর্তী ইলিয়াস শাহি বংশের শাসন

রাজা গণেশ ও হাবসি শাসন সাধারণভাবে বলা হয়ে থাকে, বাংলার ইতিহাসের দুইশ’ বছর (১৩৩৮-১৫৩৮ খ্রিষ্টাব্দ) মুসলমান সুলতানদের স্বাধীন রাজত্বের যুগ। তথাপি এই দুইশ’ বছরের মাঝামাঝি অল্প সময়ের জন্য কিছুটা বিরতি ছিল। গিয়াসউদ্দিন আজম শাহের মৃত্যুর পর তাঁর পুত্র সাইফুদ্দিন হামজা শাহ সিংহাসনে বসেন। কিন্তু এ সময় অভিজাতদের মধ্যে ক্ষমতা দখল নিয়ে ষড়যন্ত্র চলতে থাকে। তিনি […]

বাংলায় স্বাধীন সুলতানি শাসনের ইতিহাস ও ইলিয়াস শাহি বংশ

বাংলায় স্বাধীন সুলতানি শাসনের ইতিহাস দিল্লির সুলতানগণ ১৩৩৮ থেকে ১৫৩৮ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত দুইশ’ বছর বাংলাকে তাঁদের অধিকারে রাখতে পারেন নি। প্রথমদিকে দিল্লির সুলতানের সেনাবাহিনী আক্রমণ চালিয়েছে। চেষ্টা করেছে বাংলাকে নিজের অধিকারে আনার জন্য । অবশেষে সফল হতে না পেরে হাল ছেড়ে দিয়েছে। তাই, এ সময়ে বাংলার সুলতানগণ স্বাধীনভাবে এবং নিশ্চিন্তে এদেশ শাসন করতে পেরেছেন। ফখরুদ্দিন […]

বাংলায় তুর্কি শাসনের ইতিহাস ও সুলতান গিয়াসউদ্দিন ইওজ খলজি

বাংলায় তুর্কি শাসনের ইতিহাস বাংলায় মুসলমান শাসন প্রতিষ্ঠার সূচনা করেন বখতিয়ার খলজি। এ পর্বের প্রথম পর্যায় ছিল ১২০৪ থেকে ১৩৩৮ খ্রিষ্টাব্দ পর্যন্ত । এ যুগের শাসনকর্তাদের পুরােপুরি স্বাধীন বলা যাবে না। তাদের কেউ ছিলেন বখতিয়ারের সহযােদ্ধা খলজি মালিক, আবার কেউ কেউ তুর্কি বংশের শাসক। শাসকদের সকলেই দিল্লির সুলতানদের অধীনে বাংলার শাসনকর্তা হয়ে এসেছিলেন। পরবর্তীকালে অনেক […]

মধ্যযুগের বাংলার রাজনৈতিক ইতিহাস | বাংলায় মুসলমান শাসনের সূচনা

মধ্যযুগের বাংলার রাজনৈতিক ইতিহাস (১২০৪-১৭৫৭ খ্রিষ্টাব্দ) মুসলমান শাসনের সূচনাকালকে বাংলায় মধ্যযুগের শুরু বলা হয়। ইতিহাসে এক যুগ থেকে অন্য যুগে প্রবেশ করতে হলে বিশেষ কতকগুলাে যুগান্তকারী পরিবর্তন দরকার। মুসলমানদের বঙ্গ বিজয়ের ফলে বঙ্গের রাজনৈতিক ক্ষেত্রেই শুধু পরিবর্তন আসেনি; এর ফলে বঙ্গের সমাজ, ধর্ম, অর্থনীতি, ভাষা ও সাহিত্য, শিল্পকলাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আসে। এ অধ্যায় […]

প্রাচীন বাংলার সামাজিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ইতিহাস

প্রাচীন বাংলার সামাজিক, অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক ইতিহাস মানুষ সামাজিক জীব। সমাজবদ্ধ হয়ে বসবাস করাই তার স্বভাব। এভাবে বাস করতে হলে চাই একে অন্যের সাথে সহযােগিতা। এ কারণেই মানুষের প্রয়ােজন পড়ে বিভিন্ন সামাজিক অর্থনেতিক ও রাজনৈতিকসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠান গড়ে তােলা। জীবন বাঁচাতে প্রধান তিনটি জিনিসের প্রথম প্রয়ােজন- খাদ্য, বস্ত্র এবং বাসস্থান। এর পরই মানুষ জীবনকে সুন্দরভাবে […]

Scroll to top