সর্বনাম পদ কাকে বলে? সর্বনাম পদ কত প্রকার ও কি কি?

৯ম-১০ম শ্রেণীর বাংলা ব্যাকরণ বাের্ড বই থেকে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নোত্তর পর্ব- ৬

সর্বনাম পদ

বিশেষ্যের পরিবর্তে ব্যবহৃত শব্দকে সর্বনাম পদ শব্দ বলে। বাক্যের মধ্যে বিশেষ্য যে ভূমিকা পালন করে, সর্বনাম অনুরূপ ভূমিকা পালন করে। যেমন – “শিমুল মনােযােগের সঙ্গে পড়াশোনা করত। তাই সে পরীক্ষায় ভালাে করেছে।” দ্বিতীয় বাক্যের ‘সে’ প্রথম বাক্যের শিমুল’-এর পরিবর্তে বসেছে। বিশেষ্য শব্দের মতাে সর্বনাম শব্দের সঙ্গেও বিভক্তি, নির্দেশক, বচন প্রভৃতি যুক্ত হয়।

সর্বনামের শ্রেণিবিভাগ

সর্বনামকে নিচের নয়টি শ্রেণিতে ভাগ করা যায়।

১. ব্যক্তিবাচক সর্বনাম: ব্যক্তিবাচক সর্বনাম ব্যক্তিনামের পরিবর্তে বসে। এই সর্বনাম তিন ধরনের বক্তা পক্ষের সর্বনাম: আমি, আমরা, আমাকে, আমাদের ইত্যদি। শ্রোতা পক্ষের সর্বনাম: তুমি, তােমরা, তুই, তােরা, আপনি, আপনারা, তােমাকে, তােকে, আপনাকে ইত্যাদি। অন্য পক্ষের সর্বনাম: সে, তারা, তিনি, তাঁরা, এ, এরা, ওর, ওদের ইত্যাদি। শ্রোতপক্ষ ও অন্যপক্ষের সর্বনামকে মর্যাদা অনুযায়ী তিন ভাগে ভাগ করা হয় সাধারণ সর্বনাম (তুমি, সে), মানী সর্বনাম (আপনি, তিনি, ইনি, উনি) ও ঘনিষ্ঠ সর্বনাম (তুই, এ, ও)।

২. আত্মবাচক সর্বনাম: কর্তা নিজেই কোনাে কাজ করেছে, এ ভাবটি জোর দিয়ে বােঝানাের জন্য এ ধরনের সর্বনাম ব্যবহার করা হয়। যেমন – নিজে (সে নিজে অঙ্কটা করছে), স্বয়ং ইত্যাদি।

৩. নির্দেশক সর্বনাম: যে সর্বনাম নৈকট্য বা দূরত্ব নির্দেশ করে, তাকে নির্দেশক সর্বনাম বলে। যেমন – নিকট নির্দেশক: এ, এই, এরা, ইনি; দূর নির্দেশক: ও, ওই, ওরা, উনি।

৪. অনির্দিষ্ট সর্বনাম: অনির্দিষ্ট বা পরিচয়হীন কিছু বােঝাতে যে সর্বনাম ব্যবহৃত হয়, তাকে অনির্দিষ্ট সর্বনাম বলে। যেমন – কেউ, কোথাও, কিছু, একজন (একজন এসে খবরটা দেয়) ইত্যাদি।

৫. প্রশ্নবাচক সর্বনাম: প্রশ্ন তৈরির জন্যে প্রশ্নবাচক সর্বনাম প্রয়ােগ করা হয়। যেমন – কে, কারা, কাকে, কার, কী (কী দিয়ে ভাত খায়?) ইত্যাদি।

৬. সাপেক্ষ সর্বনাম: পরস্পর নির্ভরশীল দুটি সর্বনামকে সাপেক্ষ সর্বনাম বলে। যেমন – যারা-তারা, যে-সে, যেমন-তেমন (যেমন কর্ম তেমন ফল) ইত্যাদি।

৭. পারস্পরিক সর্বনাম: দুই পক্ষের সহযােগিতা বা নির্ভরতা বোঝাতে পারস্পরিক সর্বনাম ব্যবহৃত হয়। যেমন – পরস্পর, নিজেরা নিজেরা (যাবতীয় দ্বন্দ্ব নিজেরা নিজেরা মিটমাট করে) ইত্যাদি।

৮, সকলবাচক সর্বনাম: ব্যক্তি, বস্তু বা ভাবের সমষ্টি বােঝাতে সকলবাচক সর্বনাম হয়। যেমন – সবাই, সকলে, সকলকে, সবার, সমস্ত, সব ইত্যাদি।

৯. অন্যবাচক সর্বনাম: নিজ ভিন্ন অন্য কোনাে অনির্দিষ্ট ব্যক্তি বােঝাতে অন্যবাচক সর্বনাম ব্যবহৃত হয়। যেমন- অন্য, অপর, পর, অমুক ইত্যাদি।

অনুশীলনী

সঠিক উত্তরে টিক চিহ্ন দাও।

১. বিশেষ্যের পরিবর্তে ব্যবহৃত শব্দকে কী শব্দ বলে?
ক. সর্বনাম
খ. বিশেষণ
গ. অনুসর্গ
ঘ. ক্রিয়া

২. সর্বনামকে কয়টি ভাগে ভাগ করা যায়?
ক. পাঁচ
খ. ছয়
গ. নয়
ঘ. এগারাে

৩. নিচের কোনটি ব্যক্তিবাচক সর্বনাম?
ক. একজন
খ. উনি
গ. স্বয়ং
ঘ. আমি

৪. কর্তা নিজেই কাজটি করেছেন, তা বােঝালে কোন সর্বনাম হয়?
ক. ব্যক্তিবাচক
খ. আত্মবাচক
গ, নির্দেশক
ঘ. অনির্দিষ্ট

৫. সাপেক্ষ সর্বনামের উদাহরণ কোনটি?
ক. অন্য
খ. এ
গ. যে-সে
ঘ. পরস্পর

৬. নিজ ভিন্ন অন্য কোনাে অনির্দিষ্ট ব্যক্তি বােঝাতে কোন সর্বনাম ব্যবহৃত হয়?
ক. অনির্দিষ্ট
খ. আত্মবাচক
গ. অন্যবাচক
ঘ. সফলবাচক

৭. কোন সর্বনাম নৈকট্য বা দূরত্ব নির্দেশ করে?
ক. সাপেক্ষ সর্বনাম
খ. অনির্দিষ্ট সর্বনাম
গ. আত্মবাচক সর্বনাম
ঘ. নির্দেশক সর্বনাম

সর্বনাম পদ কাকে বলে? সর্বনাম পদ কত প্রকার ও কি কি?

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Scroll to top