সফল মানুষদের সাধারণ ১৫টি বৈশিষ্ট্য

জীবনকে বদলে দেওয়া কিছু অভ্যাস

সফল মানুষদের সাধারণ ১৫টি বৈশিষ্ট্য সফল মানুষেরা তাদের কাজের ধরণ বা পদ্ধতিতে সাধারণ মানুষ থেকে একটু আলাদা হন। সাধারণ মানুষ একটা কাজ যেভাবে করেন, তারা ঐ কাজ একটু অন্যভাবে বা বিশেষ নিয়ম মেনে করে, যা তাদেরকে সাফল্য এনে দেয়। সফল মানুষদের এরূপ কিছু সাধারণ বৈশিষ্ট্য নিচে তুলে ধরা হলাে

ভালাে শ্রোতা

আকর্ষণীয় মানুষরা খুবই ভালাে শ্রোতা হয়। কেউ যখন কোনাে কথা বলে তারা । সেই কথা শােনে এবং তা বােঝার চেষ্টা করে। তারা কখনাে নিজের। প্রশংসা করতে ব্যস্ত থাকে না।

স্পষ্টভাষী

তারা যখন কোনাে বিষয়ে কথা বলে তখন অপ্রয়ােজনীয় কথা বাদ দিয়ে শুধু দরকারী কথা স্পষ্ট ভাষায় বলে। তারা অসংশয়ে, অসংকোচে সাবলীলভাবে । নিজের বক্তব্য অন্যের কাছে তুলে ধরে।

মিষ্টি হাসি বা ভালবাসার চাহনি

আকর্ষণীয় ব্যক্তিরা খুবই মিষ্টিভাষী হয়ে থাকেন। অন্যের সাথে কুশল | বিনিময়ে তারা সর্বদা মিষ্টি হাসি দিয়ে তাকে স্বাগতম জানান। তাদের চেহারায় | কোনাে বিরক্তির ছাপ থাকে না।

আজীবন শিক্ষার্থী

সফল মানুষেরা জ্ঞান অর্জন করেন সাটিফিকেটের জন্য নয়, জীবনের জন্য। তাই তারা আজীবন কেবল শিখতেই থাকেন এবং একে কাজে লাগিয়ে সাফল্যে পৌঁছান।

নিবেদিত প্রাণ কর্মী

সফল মানুষেরা সবসময় নিবেদিত প্রাণ | কর্মী হয়ে থাকেন। তাদের ওপর অর্পিত | দায়িত্বের চেয়েও আরা বেশি কাজ করেন। কেননা, তারা কাজকে ভালােবাসেন।

সকলকে শ্রদ্ধা

আকর্ষণীয় ব্যক্তিরা কাউকে অসম্মান করেন না। যে বয়স, পেশা বা অবস্থারই হােক তারা সবাইকে সম্মানের দৃষ্টিতে দেখেন।

নিজেই নিজের নিয়ন্ত্রক

প্রত্যেক সফল মানুষ নিজেই নিজের নিয়ন্ত্রক। তারা কখনাে শুধু অন্যের কথায় চলেন না, নিজের জ্ঞান-বুদ্ধিমত্তা কাজে। লাগিয়ে সিদ্ধান্ত নেন এবং চমক্কারভাবে। সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করেন।

পরিকল্পিত স্বপ্নদ্রষ্টা

সফলরা কখনাে পরিকল্পনাহীন সময় কাটান না। তারা অবকাশ যাপন করতে গিয়ে কাজ নষ্ট করেন না। আড্ডা দিতে গিয়ে সময়জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন না। রােজ ঘুম থেকে উঠার পর সারাদিনের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে নেমে পড়েন।

উপকারীর উপকার স্বীকার

সফল মানুষরা সবসময় অন্যের উপকারের কথা মনে রাখেন। কাজ শেষে কখনাে তাকে কৃতজ্ঞতা জানাতে ভুলে যান না। সবার কাছে তার প্রশংসাও করেন।

ভাগ্যের নিয়ন্ত্রক

কোনাে কাজে সাফল্য পেতে ভাগ্যের দোহায় দিয়ে বসে থাকলে চলে না। সফল মানুষেরা এ সহজ কিন্তু গভীর। সূত্রটা জানেন বলেই ভাগ্যও সবসময় তাদের জন্য সুপ্রসন্ন হয়।

পরামর্শ দেয়া বা গ্রহণ

যখন কেউ আপনার পরামর্শ চায়, তখন বুঝতে হবে সে আপনার পরামর্শকে যথাযথ মূল্যায়ন করে ও আপনাকে বিশ্বাস করে। সফল মানুষরা অন্যের যৌক্তিক পরামর্শ গ্রহণও করেন।

ব্যর্থতার প্রস্তুতি

সফল মানুষেরা সবসময় অনাকাঙ্খিত ব্যর্থতার জন্য প্রস্তুত থাকেন। তারা জানেন, সাফল্য আসে ব্যর্থতার ওপর ভিত্তি করে। ব্যর্থ হলে তারা আরও শক্ত করে হাল ধরেন, একে শিক্ষা হিসেবে নিয়ে নতুন করে সাফল্যের সােপান খোঁজেন।

জবাবদিহিতা

সফল মানুষেরা সদা জবাবদিহিতার জন্য প্রস্তুত থাকেন। তারা অনেক । নতুন নতুন পদ্ধতি বাস্তবায়ন করতে | চেষ্টা করায় সবসময় জবাবদিহিতার
সম্মুখীন হন। তবে ল করলে তা বােঝা i মাত্রই অকপটে ভুল স্বীকার করেন।

আত্নকেন্দ্রিকতা বর্জন

আকর্ষণীয় ব্যক্তিরা নিজের বিষয়ে খুব বেশি আগ্রহ না দেখিয়ে অন্যের পছন্দঅপছন্দে বেশি আগ্রহী হন। কোনাে কথপােকথনে সামনে উপস্থিত মানুষকে তারা বেশি প্রাধান্য দিয়ে থাকেন।

প্রাণবন্ত

অন্যরা তার সম্পর্কে কী ভাববে এ বিষয়ে চিন্তা না করে তারা তাদের যা ভালাে লাগে নিশ্চিন্তে সেটি করে যান। এতে তারা সন্ত্র সমাবেশ বা জমায়েতের প্রাণ বা মধ্যমণি হয়ে ওঠেন।

সফল মানুষদের সাধারণ ১৫টি বৈশিষ্ট্য
Warren Buffett

Mentors’ Speech

অর্থ উপার্জন ও এর সঠিক ব্যবহারই মানুষকে সফলতা এনে দেয়। বিশ্বের অন্যতম সেরা। ধনী ও মার্কিন অর্থনীতিবিদ ওয়ারেন এডওয়ার্ড বাফেট সাফল্য আনয়নে আর্থিক বিষয়ের এরূপ ১০টি দর্শনের প্রতি আলােকপাত করেছেন। যেগুলাে হলাে—

  1. আয়ের চেয়ে খরচ কম রাখা
  2. খরচকে চাহিদা এবং সামর্থ্যের মধ্যে বেধে রাখা,
  3. কেনাকাটায় ভবিষ্যৎ মূল্যায়ন করে খরচ করা,
  4. একটিতে সীমাবদ্ধ না থেকে আয়ের নানা পথ খোঁজা,
  5. জীবনে বড় পরিবর্তন এলেও জমা-খরচ মিলিয়ে নেয়া,
  6. আর্থিক হিসাবগুলােতে নিয়মিত নজর রাখা,
  7. নিজের ব্যাংক সম্পর্কিত বিষয় নিজে সামলানাে,
  8. অর্থের ব্যাপারে বুদ্ধিগত সীমাবদ্ধতার কথা মাথায় রাখা,
  9. বিনিয়ােগে ঝুঁকি এড়াতে সাথে বিকল্প ব্যবস্থা রাখা এবং
  10. বিশেষজ্ঞদের উপদেশ মূল্যায়নের পর সিদ্ধান্ত নেয়া।
সফল মানুষদের সাধারণ ১৫টি বৈশিষ্ট্য
Scroll to top