বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিএইচএসসিবাংলা প্রথম পত্র

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রস্তুতির জন্য বাংলা প্রথম পত্র থেকে গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্নোত্তর

বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রস্তুতির জন্য বাংলা প্রথম পত্র থেকে গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্নোত্তর

দ্য সম্পর্কিত প্রশ্নসমুহ

মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রথম গল্প— অতসীমামী।
– বুড়াে রহমানের মেয়ে যেখানে মারা গেছে- শ্বশুর বাড়িতে।
– আত্মদির মাসি-পিসি শহরের বাজারে বিক্রি করতাে- শাকসবজি-ফলমূল।
– পেশাগত জীবনে বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় ছিলেন— ম্যাজিস্ট্রেট।
– জলযােগ’ শব্দের অর্থ- হালকা খাবার।
– ঠাট্টার সম্পর্কটাকে স্থায়ী করিবার ইচ্ছা আমার নাই’—উক্তিটি–শক্ষুন্নাথের।
– অন্নপূর্ণা বলা হয়— দেবী দুর্গাকে।
– কুটির শিল্প ধ্বংস করে কৃষকদের চরম সংকটে ফেলেছে ব্রিটিশ শাসকরা।

আরো পড়ুন : কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স মার্চ ২০২০ থেকে গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্নোত্তর

– পৈছা’ হলো স্ত্রীলােকদের মণিবন্ধনের প্রাচীন অলংকার।
– গােপাল পাচ-ছয় মাস পরে যে মাসে গ্রামে আসে— আশ্বিন।
– যদি মরি, আমারে কাফনের কাপড় তুই কিনে দিস্। -উক্তিটি—বুড়ির।
– ‘আমার পথ’ প্রবন্ধটি সংকলিত হয়েছে রুদ্র-মঙ্গল’ প্রবন্ধগ্রন্থ থেকে।
– ‘সংস্কৃতি কথা’ মােতাহের হােসেন চৌধুরীর যে ধরনের রচনা—প্রবন্ধগ্রন্থ।
– স্বল্পপ্রাণ, স্কুলবুদ্ধি ও জবরদস্তিপ্রিয় মানুষের একমাত্র দেবতা—অহংকার।
– মুনি-ঋষিরা তপস্যা করেন এমন বনকে বলে— তপােবন।
– রাষ্ট্রীয় প্রচেষ্টায় ব্রিটিশ মিউজিয়াম প্রতিষ্ঠিত হয়— আঠারাে শতকে।
– কোহিনুর দেখতে সবাই ভিড় করে— টাওয়ার অফ লন্ডনে।

দ্য সম্পর্কিত প্রশ্নসমুহ

‘আঠারাে বছর বয়স’ কবিতাটি যে কাব্যের অন্তর্গত ছাড়পত্র।
– ‘আঠারাে বছর বয়স জানে না কাঁদা’ চরণটিতে প্রকাশ পেয়েছে—আত্মপ্রত্যয়।
– ‘আঠারাে বছর বয়স’ কবিতায় ‘আঠারাে’ অর্থ যৌবন।
– সালামের হাত থেকে নক্ষত্রের মতাে ঝরছিল— বর্ণমালা।
– ‘মৃগেন্দ্র’ বলতে বােঝানাে হয়েছে— পরাজিত সিংহকে।
– লক্ষ্মণ যার সহায়তায় নিকুম্ভিলা যজ্ঞাগারে প্রবেশ করে—বিভীষণ।
– স্ত্রীবাচক শব্দ ‘বিপুলা দিয়ে কবি বুঝিয়েছেন— পৃথিবীকে।
– পারস্য দেশ বা ইরানের নাগরিকদের বলা হয়— পার্সি।
– কবি শ্রেষ্ঠ তীর্থস্থান হিসেবে অভিহিত করেছেন মানুষের হৃদয়কে।
– বারুণী’ শব্দটি দ্বারা যাকে নির্দেশ করা হয়েছে জলের দেবীকে।
– তাহারেই পড়ে মনে’ কবিতাটি প্রথম যে পত্রিকায় প্রকাশিত হয়— মাসিক মােহাম্মদী।
– ‘অলখ’ শব্দের অর্থ—অলক্ষ।

– ‘সেই অস্ত্র’ কবিতাটিতে একটি বিখ্যাত নগরীব উল্লেখ রয়েছে, নগরীটি হলাে—ট্রয়।
– ‘আমি কিংবদন্তির কথা বলছি’ কবিতাটি যে ছন্দে রচিত গদ্যছন্দে।
– পলিমাটির সৌরভ দ্বারা বােঝানাে হয়েছে- উর্বর মৃত্তিকা।
– সৈয়দ শামসুল হন্দ্রে নূরলদীনের সারাজীবন যে ধরনের রচনা- কাব্যনাট্য।
– নূরলদীন ছিলেন একজন—কৃষক নেতা।
– আল মাহমুদের প্রকৃত নাম- মির আবদুস শুকুর আল মাহমুদ।
– “নিলক্ষা’ শব্দের অর্থ—দৃষ্টিসীমা অতিক্রমী।
– বনচারী বাতাসে যা দোলা দেয়— পানলতা।
– কবি আল মাহমুদের প্রথম কাব্যগ্রন্থ লােক- লােকান্তর।

প ন্যা স সম্পর্কিত প্রশ্নসমুহ

মাজারের পাশে দাড়িয়ে রহিমা শক্তি প্রার্থনা করে হাসুনির মার জন্য।
– মজিদের মহব্বতনগর গ্রামে প্রবেশটা যেমন ছিল—নাটকীয়।
– ‘লালসালু’ উপন্যাসে জমিলা যে ধরনের মানুষ- স্বাধীনচেতা।
– খালেক ব্যাপারীর মতে আক্কাস দাড়ি রাখেনি যে কারণে—ইংরেজি পড়েছে বলে।
– মজিদের সামনে খালেক ব্যাপারী অসহায় যে কারণে— ধর্মভীতির কারণে।
– ‘তাদের দিল সাচ্চা, খাটি সােনার মতাে’ বাক্যটি যাদের সম্পর্কে করা হয়েছে— গারাে পাহাড়ের লােকদের।

না ট ক সম্পর্কিত প্রশ্নসমুহ

‘সিরাজউদ্দৌলা’ নাটকটি প্রকাশিত হয়— ১৯৬৫ সালে।
– রস বিচারে সিরাজউদ্দৌলা’ নাটকটি যে প্রকৃতির—ট্র্যাজেডিধর্মী।
– জগৎশেঠ ছিলেন— জৈন সম্প্রদায়ের মানুষ ও পেশায় ব্যবসায়ী।
– সিরাজউদ্দৌলার বিরুদ্ধে ঘষেটি বেগমের আক্রমণের কারণ ছিল— রাজনৈতিক।
– সিরাজউদ্দৌলাকে হত্যা করা হয় ২ জুলাই ১৭৫৭।
– ‘আমার শেষ যুদ্ধ পলাশিতেই’ উক্তিটি— মােহনলালের।
– ক্লাইভের গাধা ও বিশ্বাসঘাতক হিসেবে পরিচিত মিরজাফর।

শেয়ার করুন

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button