প্রশ্ন ও উত্তর

বাংলাদেশের প্রথম নারী রাষ্ট্রদূত বা হাইকমিশনার কে?

বাংলাদেশের প্রথম নারী রাষ্ট্রদূত বা হাইকমিশনার কে?
ভুল  মাহমুদা হক চৌধুরী
সঠিক  তাহমিনা খান ডলি

পারস্পরিক স্বার্থরক্ষার্থে দুটো রাষ্ট্রের মধ্যে বিশেষ প্রতিনিধির মাধ্যমে যে সম্পর্ক রক্ষা করা বা আলােচনা হয়, তাকেই বলা হয় কূটনীতি। এ ধরনের কাজের সাথে যারা সম্পর্কিত থাকেন তাদেরকে বলা হয় কূটনীতিক। কূটনীতির ইংরেজি প্রতিশব্দ Diplomacy গ্রিক diploma থেকে এসেছে।

ফ্রান্সে ১৭শতক থেকে বিদেশে অবস্থানকারী বাণিজ্যিক ও সরকারি প্রতিনিধি দলকে কূটনৈতিক দল বলা শুরু হয়। কূটনীতি শব্দটি ১৭৯৬ সালে এডমন্ড বার্ক প্রচলিত ফরাসি শব্দ diplomate থেকে প্রচলন হয়। কূটনীতি সংস্কৃত শব্দ।

এই বিভাগ থেকে আরো পড়ুন

প্রথম মৌর্য সম্রাট চন্দ্রগুপ্তের উপদেষ্টা কৌটিল্যর নাম থেকে কূটনীতি শব্দটির উদ্ভব ঘটে। ১৯৭৯ সাল থেকে বাংলাদেশে নারীরা পেশাদার কূটনীতিক হিসেবে কাজ শুরু করেন। ১৯৭৭ পাবলিক সার্ভিস কমিশনে পরীক্ষা দিয়ে প্রথম নারী হিসেবে ফরেন সার্ভিসে যােগ দেন নাসিম ফেরদৌস। পেশাদার কূটনীতিক না হয়েও রাজনৈতিক বিবেচনায় ১৯৮০ সালের জানুয়ারি মাসে বাংলাদেশের প্রথম নারী হাইকমিশনার হওয়ার গৌরব অর্জন করেন তাহমিনা খান ডলি।

এরপর তাহমিনা খান মালদ্বীপে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২ অক্টোবর ১৯৯৬ সরকারি চাকরিজীবীদের মধ্য থেকে প্রথম নারী রাষ্ট্রদূত হন মাহমুদা হক চৌধুরী। তিনিও পেশাদার কূটনীতিক ছিলেন না। পেশাদার কূটনীতিক হিসেবে যােগ দেওয়া প্রথম নারী কূটনীতিক নাসিম ফেরদৌসকে ২০০২ সালে ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রদূত করা হয়।

কূটনীতিতে প্রথম নারী
কূটনীতিক নাসিম ফেরদৌস  ১৯৭৯ সাল
রাষ্ট্রদূত বা হাইকমিশনার তাহমিনা খান ডলি শ্রীলংকা (১৯৮০-১৯৮১)
সরকারি চাকরিজীবীদের মধ্য থেকে রাষ্ট্রদূত মাহমুদা হক চৌধুরী ভুটান (১৯৯৬-১৯৯৮)
পেশাদার কূটনীতিক থেকে রাষ্ট্রদূত নাসিম ফেরদৌস ইন্দোনেশিয়া (২০০২-২০০৬)
মধ্যপ্রাচ্যের রাষ্ট্রদূত নাহিদা সােবহান জর্ডান (২০২০-বর্তমান)
জাতিসংঘে নিযুক্ত প্রথম নারী স্থায়ী প্রতিনিধি ইসমাত জাহান নিউইয়র্ক (২০০৭-২০০৯)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button