সামাজিক বিজ্ঞান

নাগরিকতা লাভের পদ্ধতি

নাগরিকতা দুইভাবে লাভ করা যায় :

  • জন্মসূত্রে ও
  • অনুমােদনসূত্রে

জন্মসূত্রে নাগরিক : যারা জন্মের অধিকারে নাগরিকত্ব অর্জন করে, তাদের জন্মসূত্রে নাগরিক বলা হয়।

অনুমােদনসূত্রে নাগরিক : যারা বিভিন্ন রাষ্ট্রের নানাবিধ শর্ত পূরণ করে আইনের সাহায্যে অনুমােদন নিয়ে নাগরিকত্ব অর্জন করে তাদের অনুমােদনসূত্রে নাগরিক বলা হয়।

জন্মসূত্রে নাগরিক : জন্মসূত্রে নাগরিকতা লাভের আবার দুইটি পদ্ধতি আছে। একটি জন্মনীতি, অপরটি জন্মস্থান নীতি।

জন্মনীতি : জন্মনীতি অনুসারে সাধারণত পিতা-মাতা যে দেশের নাগরিক, সন্তানও সে দেশের নাগরিক হবে। এ ক্ষেত্রে পিতা-মাতার নাগরিকতা সন্তানের নাগরিকতা নির্ধারণ করে। বাংলাদেশ, পাকিস্তান এই নীতি অনুসরণ করে।

জন্মস্থান নীতি : এ নীতি অনুসারে যে যে রাষ্ট্রে জন্মগ্রহণ করে, সে সেই রাষ্ট্রের নাগরিক বলে গণ্য হয়। এ ক্ষেত্রে জন্মের স্থান নাগরিকতা নির্ধারণ করে। যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্র জন্মনীতি ও জন্মস্থান নীতি -এ উভয় নীতি অনুসরণ করে।

সাধারণভাবে জন্মসূত্রে নাগরিক ও অনুমােদনসূত্রে নাগরিকের মধ্যে কোনাে বৈষম্য করা হয়না। আবার কোনাে কোনাে দেশে কিছু বৈষম্য দেখা যায়। যেমন- আমেরিকাতে অনুমােদনসূত্রে নাগরিক প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হতে পারে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button