জীবনযাপনরেসিপি

গরুর মাংসের বিরানি কিভাবে রান্না করতে হয়

গরুর মাংসের বিরানি কিভাবে রান্না করতে হয় এটা জানা থাকলে গরুর মাংসের বিরিয়ানির থেকে সহজ রান্না আর হয় না। এর স্বাদ তো প্রায় সবারই জানা। সুস্বাদু এই খাবারটি রান্না করতে চাইলে জেনে নিন সহজ রেসিপি-

গরুর মাংসের বিরানি রান্না করার উপকরণসমূহ

  • গরুর মাংস- ১ কেজি
  • পােলাওর চাল- ১ কেজি
  • পিঁয়াজ বেরেস্তা- ১ কাপ
  • আদা বাটা- ১ টেবিল চামচ
  • রসুন বাটা- ১ টেবিল চামচ
  • জিরা বাটা- ১ চা চামচ
  • শাহি জিরা বাটা- ১/২ চা চামচ
  • জায়ফল ও জয়ত্রী বাটা- ১ চা চামচ
  • ধনিয়া গুঁড়া- ১ চা চামচ
  • মরিচে গুঁড়া- ১ চা চামচ
  • গরম মসলা গুঁড়া- ১ চা চামচ
  • তেল- ১/৪ কাপ
  • ঘি- ৩/৪ টেবিল চামচ
  • চিনি সামান্য
  • লবণ স্বাদ মত
  • টক দই- ১/২ কাপ
  • আস্ত গরম মশলা (এলাচ দারচিনি লবঙ্গও) – ৩/৪ টি করে
  • আলু বােখারা- ১০ টি
  • আলু- ৮/১০ টুকরা
  • কিসমিস- ইচ্ছা মতন
  • আফরান- অল্প একটু (২ টেবিল চামচ দুধে গােলানাে)
  • পানি- ৭ কাপ
  • কেওড়া পানি- ইচ্ছা
  • কাঁচা মরিচ- ৫/৬ টি

এছাড়াও কালাে এলাচ- ১ টি, সাদা এলাচ- ৫ টি, গােল মরিচ- ১০/১২ টা, কাঠ বাদাম- ১৫ টি একত্রে বেটে নিতে হবে।

গরুর মাংসের বিরানি রান্নার পদ্ধতি

মাংস বড় টুকরাে করে কেটে নিতে হবে। তারপর টক দই, আদা- রসুন বাটা, ১/২ কাপ বেরেস্তা বেরেস্তা, জিরা বাটা, শাহী জিরা বাটা, জায়ফলজয়ত্রী বাটা, মরিচের গুরা, ধনিয়ার গুঁড়া, কালাে এলাচ-লবঙ্গ– সবুজ এলাচদারচিনি- কালাে গােল মরিচ- কাঠ বাদাম বাটা, গরম মশলা গুঁড়া দিয়ে মাখিয়ে রাখতে হবে ২/৩ ঘণ্টা।

চাইলে আগের দিন রাতেও মাখিয়ে রাখতে পারেন। তারপর তেল গরম করে আস্ত গরম মশলার ফোড়ন দিয়ে মাংস কশিয়ে অল্প পানি দিয়ে বেঁধে নিতে হবে। আলু লাল করে ভেজে সাথে দিয়ে দিতে হবে। মাংসে ঝােল থাকবে না, মাখা মাখা হয়ে তেল ভেসে উঠবে।

এবার হাঁড়িতে ঘি গরম করে আবার আস্ত গরম মশলা দিতে হবে। আগে থেকে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে রাখা চাল দিয়ে দিতে হবে। বাকি বেরেস্তা গুলাে দিয়ে চাল ভালাে করে ভাজতে হবে। কিসমিস, চিনি ও আলু বােখারা দিতে হবে। চাল ভাজা হযে গন্ধ ছড়ালে ফুটন্ত গরম পানি দিয়ে দিতে হবে।

এরপর মাংস ঢেলে দিয়ে নারতে হবে ভালাে করে। ফলে চাল ও মাংস মিলে যাবে। আঁচ থাকবে মাঝারি। পানি শুকিয়ে আধা সিদ্ধ চাল ভেসে উঠলে জাফরান গােলানাে দুধ ছিটিয়ে হাঁড়ির মুখ ঢেকে দিতে হবে। হাঁড়ির নিচে একটি তাওয়া বসিয়ে চুলার আঁচ একদম কম করে বিরিয়ানি দমে দিতে হবে৷

১৫/২০ মিনিট পর ঢাকনা সরিয়ে উলটে পালটে দিতে হবে বিরিয়ানি। কেওড়া পানি ও কাচা মরিচ ছিটিয়ে আরও ১০ মিনিট দম দিয়ে পরিবেশন করতে হবে গরম গরম। অপরে ছিটিয়ে দিতে পারেন বাদাম কুচি ও বেরেস্তা। সাজাবার জন্য ব্যবহার করতে পারেন ডিম। এই বিরিয়ানি ফ্রিজেও ভালাে থাকে বেশ কিছুদিন। তাই ঢাকনা দেয়া পাত্রে সংরক্ষণ করতে পারেন। খাবার পূর্বে অল্প আঁচে দমে দিয়ে দিবেন হাঁড়ির মুখে ঢাকনা দিয়ে ৷ দেখবেন কেমন সুন্দর গরম হয়েছে। মনেই হবে না যে ফ্রিজে রাখা বিরিয়ানি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button