ভাবসম্প্রসারণ

করিতে পারি না কাজ, সদা ভয়, সদা লাজ সংশয়ে সংকল্প সদা টলে, পাছে লোকে কিছু বলে।

করিতে পারি না কাজ, সদা ভয়, সদা লাজ
সংশয়ে সংকল্প সদা টলে, পাছে লোকে কিছু বলে।

সমাজে কিছু দুর্বল মনের মানুষ থাকে। ভয় ও সংকোচ তাদের প্রতিদিনের সঙ্গী। কথা বলতে তারা দ্বিধা-দ্বন্দ্বে ভোগে। কোনো কাজ করতে গেলেও তাদের মনে সংশয় থাকে। ফলে মনের কথাটা প্রয়োজন মতো বলা হয় না। আবার শুভ কাজটাও সঠিক সময়ে সঠিকভাবে করা হয় না।

সমাজে কিছু দুর্বল মনের মানুষ থাকে, যাদের মনে সব সময়ই সন্দেহ জাগে, কে কী মনে করবে, কে কী বলবে, কে কী সমালোচনা করবে। অর্থাৎ লোকে কী ভাববে, এ বিষয়টা নিয়েই তার যত পিছুটান। অথচ সে যা ভাবছে, যা চিন্তা করছে যা করতে যাচ্ছে তা সমাজের জন্য কল্যাণকর। মানুষ তা থেকে উপকৃত হবে। কেননা প্রতিটি মুহূর্তে শুভ চিন্তা, কল্যাণ ভাবনা, পরোপকারী কাজ তাকে তাড়া করে। সে সমাজের উন্নতি ও সমৃদ্ধির জন্য কাজ করতে চায়। শক্তি-সামর্থ্য, অর্থ-বিত্ত তার আছে। কিন্তু উদ্যোগ নিতে গিয়েই দ্বিধা দ্বন্দ্ব, সমালোচনা-নিন্দার ভয় তাকে পিছু টানে। ফলে শুভ ও কল্যাণকর কাজটা করতে গিয়ে পন্ডশ্রম হয়। সুন্দর কথা ও সুন্দর কাজ মনের মধ্যেই থেকে যায় তা কোনো সুফল বয়ে আনতে পারে না।

প্রকৃতপক্ষে যেকোনো সুন্দর বা গঠনমূলক কথা বলতে বা শুভ কাজ করতে পিছুটান থাকা উচিত নয়। কল্যাণ, উন্নতি ও সমৃদ্ধির স্বার্থে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব-ভয় বিসর্জন দিতে হয়। নিশ্চিন্ত নির্ভয়ে ও নিঃসংকোচে শুভ চিন্তা ও কল্যাণ ভাবনাকে কাজে লাগালেই উন্নতি ও সমৃদ্ধি নিশ্চিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button