উত্তম নিশ্চিন্তে চলে অধমের সাথে তিনি মধ্যম যিনি চলেন তফাতে

প্রীতিহীন হৃদয় আর প্রত্যয়হীন কর্ম দুই-ই অসার্থক

উত্তম নিশ্চিন্তে চলে অধমের সাথে তিনি মধ্যম যিনি চলেন তফাতে

মহৎ ব্যক্তিরা তাদের জীবদ্দশায় সকল মানুষের কল্যাণে নিয়ােজিত থাকেন। কিন্তু এমন কিছু মানুষ আছেন যারা অন্যান্য শ্রেণীকে সর্বদা এড়িয়ে চলেন। এ জগতে তিন শ্রেণীর মানুষ রয়েছে : উত্তম, মধ্যম ও অধম। উত্তম ও অধমের মধ্যে একটা সুস্পষ্ট সীমারেখা বিদ্যমান। যিনি উত্তম তার চরিত্র ও আচার-আচরণ সৎ আদর্শ ও ন্যায়নিষ্ঠ হওয়ায় তিনি নিশ্চিন্তে অধমের সাথে মিশতে পারেন। তার চরিত্র অধমের প্রভাবে স্থলিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। কিন্তু মধ্যমরা নিজেদের ক্ষতি ও পতন সম্বন্ধে শঙ্কিত। দোষে-গুণে মিলেই মধ্যম ব্যক্তির চরিত্র গড়ে ওঠে বলে তাদের অর্জিত মহত্ত্ব ও আদর্শটুকু অধমের সাথে মিশলে হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তারা ভাবে, মন্দের সংস্রবে এলেই বিপদের সম্ভাবনা, মন্দরা তাদের অনিষ্ট করবে। তাই মধ্যম সব সময় অধমের কাছ থেকে দূরে থাকে। কিন্তু প্রকৃত মহৎ উত্তম ব্যক্তি সর্বস্তরের জনগণকে নিঃসংকোচে অভিনন্দন জানায়। উত্তম দৃঢ়চিত্তে অধমের সাথে চলে। তার চরিত্র এতই বলিষ্ঠ যে, কোনাে দুর্বলতা তাকে স্পর্শ করতে পারে না। অধমের সংস্পর্শে উত্তমের চরিত্রে কোনাে কালিমা লেপনের আশঙ্কা নেই। কিন্তু মধ্যম দৃঢ়চিত্ত নয় বলেই অধমের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলতে চায়। অতএব দেখা যায়, উত্তম। অধমের সাথে স্বাভাবিক যােগাযােগ ও চলাচল রাখলেও অধম নির্দিষ্ট দূরত্ব নিয়েই ভালাে থাকতে সচেষ্ট।

এই বিভাগের আরো ভাবসম্প্রসারণ :

উত্তম নিশ্চিন্তে চলে অধমের সাথে তিনি মধ্যম যিনি চলেন তফাতে
Scroll to top