এসএসসিভাবসম্প্রসারণ

আলো বলে অন্ধকার তুই বড় কালাে অন্ধকার বলে ভাই তাই তুমি আলাে

আলো বলে অন্ধকার তুই বড় কালাে অন্ধকার বলে ভাই তাই তুমি আলাে

বৈপরীত্য আছে বলেই আমরা বস্তুর স্বরূপ উপলব্ধি করতে পারি। পৃথিবীতে মন্দ আছে বলেই ভালাের এত কদর। আলাে ও অন্ধকার—আপাতদৃষ্টিতে দুটোকে বিপরীত মনে হলেও আলাের স্বরূপ বুঝতে হলে অন্ধকারের প্রয়ােজন হয়। রাত্রি ও দিনের মধ্যে যদি কোনাে পার্থক্য না থাকত, একটানা আলাে বা একটানা অন্ধকার হলে আমরা রাত্রি ও দিনের কোনাে তফাত বুঝতে পারতাম না। ভালাে-মন্দ, সাদা-কালাে, ইতর-ভদ্র, সুজন-কুজন, পাহাড়-সমতল, মরভূমি-সমুদ্র এসব প্রাকৃতিক বৈপরীত্যের সমন্বয়ে গড়ে উঠেছে এ জগৎসংসার। এই বৈপরীত্যের স্বরূপ উপলদ্ধি করেই মানুষ বেছে নেয় সঠিক পথ ও পন্থা। তৈরি হয় বিবেচনাবােধ। তুলনার মধ্য দিয়ে কোনাে বস্তুর স্বরূপ অনুধাবন করা যায় সহজ। আলাে ও অন্ধকারের এ ঝগড়া অমূলক। আসলে ভালাে-মন্দ, আলাে-অন্ধকার একে অপরের পরিপূরক। অন্ধকার কালাে বলে তাকে নিন্দা করার কিছু নেই। কারণ, অন্ধকার আছে বলেই আলাের এত কদর।

এই বিভাগের আরো ভাবসম্প্রসারণ :

Back to top button