টুকরো সংবাদসাধারণ জ্ঞানসাম্প্রতিক সাধারণ জ্ঞান

অসমাপ্ত আত্মজীবনী সম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্ন ও উত্তর

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মূল্যবান তিনটি লেখার একটি

অসমাপ্ত আত্মজীবনী : জাতির পিতাকে জানতে, বুঝতে ও হৃদয়ঙ্গম করতে হলে তার রচনাবলির পাঠ হওয়া উচিত প্রথম পদক্ষেপ। এ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মূল্যবান তিনটি লেখা গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয়েছে। এগুলাে হলাে- ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ (২০১২), ‘কারাগারের রােজনামচা’ (২০১৭) এবং ‘আমার দেখা নয়াচীন’ (২০২০)। আমাদের আজকের লেখায় ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ সংক্ষেপে আলােচনা করা হলাে।

‘অসমাপ্ত আত্মজীবন ‘ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের এক অনন্য রচনা। ১৯৬৬-৬৯ সালে কেন্দ্রীয় কারাগারে রাজবন্দি থাকাকালে তিনি এটি রচনা করেন। ২০১২ সালে এটি গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয়।

অসমাপ্ত আত্মজীবনীর বিষয়বস্তু

গ্রন্থটিতে আত্মজীবনী লেখার প্রেক্ষাপট, বঙ্গবন্ধুর বংশ পরিচয়, জন্ম, শৈশব, স্কুল ও কলেজের শিক্ষাজীবনের পাশাপাশি সামাজিক ও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড, দুর্ভিক্ষ, বিহার ও কলকাতার দাঙ্গা, দেশভাগ, কলকাতাকেন্দ্রিক প্রাদেশিক মুসলিম ছাত্রলীগ ও মুসলিম লীগের রাজনীতি, দেশ বিভাগের পরবর্তী সময় থেকে ১৯৫৪ সাল অবধি পূর্ব বাংলার রাজনীতি কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক মুসলিম লীগ সরকারের অপশাসন, ভাষা আন্দোলন, ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠা, যুক্তফ্রন্ট গঠন ও নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে সরকার গঠন, আদমজীর দাঙ্গা, পাকিস্তান কেন্দ্রীয় সরকারের বৈষম্যমূলক শাসন ও ষড়যন্ত্রের বিস্তৃত বিবরণ এবং এই সব বিষয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতার বর্ণনা রয়েছে।

আছে তার কারাজীবন, পিতা-মাতা, সন্তান-সন্ততি ও সর্বোপরি সর্বংসহা সহধর্মিণী বেগম ফজিলাতুন নেছার কথা, যিনি বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক জীবনে সহায়ক শক্তি হিসেবে সকল দুঃসময়ে অবিচলভাবে পাশে ছিলেন। একইসঙ্গে বঙ্গবন্ধুর চীন, ভারত ও পশ্চিম পাকিস্তান ভ্রমণের বর্ণনাও বইটিকে বিশেষ মাত্রা দিয়েছে।

গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্য

  • ইংরেজি সংস্করণ : Unfinished Memoirs
  • প্রচ্ছদ : সমর মজুমদার
  • প্রথম প্রকাশ: ১৯ জুন ২১২
  • গ্রন্থের নামকরণ : শেখ রেহানা
  • ভূমিকা লেখেন : শেখ হাসিনা
  • বিষয়বস্তুর সময়কাল : জন্মপূর্ব থেকে ১৯৫৫ খ্রি.
  • বিদেশি ভাষায় অনুবাদ প্রকাশ : ১৩টি।
  • সর্বশেষ প্রকাশিত অনুবাদ: কোরিয়ান ভাষায় (১ জুলাই ২০২১)।

প্রশ্ন ও উত্তরে অসমাপ্ত আত্মজীবনী

প্রশ্ন : অসমাপ্ত আত্মজীবনীর পাণ্ডুলিপি শেখ হাসিনার হাতে আসে কবে?
উত্তর : ২০০৪ সালে।

প্রশ্ন : ‘বসেই তাে আছ, লেখ তােমার জীবনের কাহিনী’-এ কথা কে বলেছিল?
উত্তর : বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধুর দাদার নাম কী?
উত্তর : শেখ আব্দুল হামিদ।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পিতার পেশা কী ছিল?
উত্তর : সেরেস্তাদার।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শিক্ষা জীবন কোন স্কুল থেকে শুরু হয়?
উত্তর : এম. ই. স্কুল; টুঙ্গিপাড়া।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গ্লুকোমা রোগে আক্রান্ত হন কত সালে?
উত্তর : ১৯৩৬ সালে।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু প্রথম কারাবরণ করেন কত সালে?
উত্তর : ১৯৩৮ সালে।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কলকাতায় ইসলামিয়া কলেজে পড়ার সময় কোন হােস্টেলে থাকতেন?
উত্তর : বেকার হােস্টেলে।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সক্রিয় রাজনীতিতে অংশগ্রহণ করেন কবে?
উত্তর: ১৯৩৯ সালে।

প্রশ্ন : ‘যারা কাজ করে তাদেরই ভুল হতে পারে, যারা কাজ করে না তাদের ভুলও হয় না’- উক্তিটি কে করেন?
উত্তর : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মহাত্মা গান্ধীকে কী উপহার দেন?
উত্তর : কিছু দাঙ্গা-হাঙ্গামার ছবি।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কোন বিভাগে ভর্তি হন?
উত্তর : আইন বিভাগ।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রথম সভাপতিত্ব করেন কোন ছাত্রসভায়?
উত্তর : আমতলার সাধারণ ছাত্রসভায়।

আরো কিছু তথ্য…………………

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু কোন শিল্পীর গানের ভক্ত ছিলেন?
উত্তর : আব্বাস উদ্দিন।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু ছাত্র রাজনীতি থেকে বিদায় নেন কোন সালে?
উত্তর : ১৯৪৯ সালে।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের রাজনৈতিক গুরু কে ছিলেন?
উত্তর : হােসেন শহীদ সােহরাওয়ার্দী।

প্রশ্ন : কার নির্দেশে সর্বদলীয় সংগ্রাম পরিষদ গঠন করা হয়?
উত্তর : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের।

প্রশ্ন : বঙ্গবন্ধু তার অসমাপ্ত আত্মজীবনীতে মিয়ানমারকে কী নামে অভিহিত করেন?
উত্তর : ব্রহ্মদেশ।

প্রশ্ন : ‘আমি মন্ত্রিত্ব চাই না।’ যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনে জয়লাভের পর কে এ কথা বলেছিল?
উত্তর : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

প্রশ্ন : শেখ মুজিবুর রহমান শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হককে কী বলে সম্বােধন করতেন?
উত্তর : নানা।

প্রশ্ন : যুক্তফ্রন্ট মন্ত্রিসভায় সর্বকনিষ্ঠ মন্ত্রী ছিলেন কে?
উত্তর : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

প্রশ্ন : ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্বাচনী এলাকা কোন দুটি থানা ছিল?
উত্তর : গােপালগঞ্জ ও কোটালীপাড়া।

প্রশ্ন : ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ গ্রন্থটি কোন বাক্য দিয়ে শেষ হয়?
উত্তর : তাতেই আমাদের হয়ে গেল।

Bcs Preparation

BCS Preparation provides you with course materials and study guides for JSC, SSC, HSC, NTRCA, BCS, Primary Job, Bank and many other educational exams.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button